Sad Love story

জীবনের প্রথম অসমাপ্ত ভালবাসার সত্য গল্প- Sad Love story,বনধুরা আমার জীবনে পথম প্রেম আসে আমি যখন class নায়নে এ পড়ি তখন হটাত একটা মেয়ের আগমন হলো মেয়েটি অন্য সকুল থেকে এসে আমাদের সকুলে class seven এ এসে ভতি হলো,,,,, যে দিন প্রথম ভতি হতে আসলো মেয়েটি আমাদের সকুলে সেদিন থেকেই তাকে অনেক ভালো লাগতে শুরু করলো,, তারপর দিন আমি আবার মেয়েটি খুজছি যে মেয়েটি সকুলে এসেছি কি কিনতু দূভাগ্য হলো মেয়েটি সকুলে আসি নি,,,

তার পর দিন খুজলাম তাও আসলো না, তার পর দিন সকুলে seven এর রুমে গেলাম তাও পেলাম,, এবার মনটার মধ্য অসিতর ভাব শুরু হলো আমার অনেক বনধু দের কাছে জিগগাস করলাম মেয়েটা কেউ চেনে কি না কিনতু কেউ মেয়টাকে চেনে না,,, প্রায় ১ সপতাহ পর মেয়েটি আবার সকুলে আসলো একটা ununifrom drag পরে আমি মেয়াটার দেখতেই আমার বুকের মধ্য চমকে উঠলো এর মধ্যই মেয়েটাকে বুকের মধ্য জায়গা দিয়ে ফেলেছি,, তারপর এভাবে কয়েকটা দিন কাটলে লাগলো আমি ওই মেয়েটার বিষয়ে জানতে থাকলাম ওর ফ্রেন্ড এর কাছ থেকে তারা বললো ওই মেয়েটি নানি বাড়ি থাকে এবং নানি বাড়ি থেকেই পড়া শোনা করে সেই মুহূতে মেয়েটির নাম জানতে পারলাম, মেয়েটির নাম ছিলো জুই,,,,,,,

এভাবে কয়েটাদিন কেটে গেলো কোনো ভাবেই বুঝতে পারছিলাম না যে মেয়েটি কি ভাবে বলবো যে আমি তোমাকে ভালোবাসি,,,, একদিন সকুল ছুটির পর বুকে সাহস নিয়ে গেলাম ওই মেয়েটির পিছু পিছু বলবো বলে যে আমি তোমাকে ভালোবাসি কিনতু কেনো জানি বলতে পারলাম না ওই দিন আর বলা হলো না,,,, আবার তারপরের দিন মেয়েটার পিছু নিলাম দেখি মেয়েটা তার বানধবি দের সাথে হেটে হেটা যাচেছ,, আমি তাকে ডাক দিয়ে বললাম শোনো তোমার নাম জুই তো মেয়েটি বললো,,,,,

হ্যা কেনেন,,, আমি বললাম তোমাকে আমি ভালোবাসি তখন মেয়েটি কিছু বললো না চুপ করেই চলে গেলো,,, আমিও সেই সময় মনটা খারাপ করে চলে আসলাম বাড়ি এসে সকুল ড্রেজ টা খুলে ফ্রেস হয়ে খেয়ে কচিং এ যাবো আর যেতে মনই চাচেছ না কোনো কিছু তে মনই বসছে না সেদিন আর কচিং এ গেলাম না সনধ্যার পর বইটা নিয়ে একটু পড়তে বসবো তাও মন বসছে না সবসময় সুধু ওই মেয়েটার কথা মনে পড়ছে মেয়েটার মুখটা আমার মুখের সামনে ভেবে উঠেছে ওই দিন সারারাত টা আর ঘুম হলো না শরীর এর মধ্য অসিতর ভাব লাগছে সারারাত শুধু একবার এপাশ ও একবার এপাশ করছি আর মনটার মধ্য শুধু বলছে কখন সকাল হবে আর কখন সকুলে যাবো আর ওই মেয়েটার দেখতে পাবো,,, এভাবে ভাবতে ভাবতে হটাত কখন দেখি নিজের অজানতেই সকাল হয়ে গেছে,, এবার

এবার সকালে ঘুম থেকে ওঠে ফ্রেস হয়ে বইটা নিয়ে একটু বসলাম তাও পড়াতে মন বসচেছ না শুধু বই টা বের করেই রেখিছি আর মনটা পড়ে আছে সেই মেয়েটার কাছে,,,, তার একটু পর ঘড়ির দিখে তাকিয়ে দেখি সকুলের সময় হয়ে এসেছে প্রায়,,, আমি গুছিয়ে নিয়ে ওই দিন একটু আগে আগেই সকুলে গেলাম ৩০ মিনিট আগে গিয়ে পৌছালাম সকুলে গিয়ে দেখি কেউ আসি নি,,, আমি শুধু রাসতার দিখে চেয়ে আছি যে মেয়েটি কখন আসবে আর কখন দেখবো এক পলক মেয়েকে এর মধ্যও নিজের মধ্য ভয় কাজ করছে মেয়েটিকে কাল আমি ওর বানধবি দের সকলের সামনে বলেছি যে ভালোবাসি,,,,

এমটা ভাবতে ভাবতে হটাত রাসতার দিকে তাকালাম দেখলাম মেয়েটা আসছে আমি আবার মেয়েটির রুমের ২য় নমবর রুমের বারানদায় দাড়ায় আছি যাতে করে মেয়েটি আমাকে দেখতে পায়,,,, মেয়েটি এবার সকুল মাঠে প্রবেশ করলো তার রুমে প্রবেশ করার শেষ মুহূতে আমাকে দেখতে পেলো তার চোখে চোখে তাকানো পড়লো,,,,, মেয়েটি এবং তার বানধবি রা আমাকে দেখে হেসে চলে গেলো রুমে,,,, তার ১০ -১৫ মিনিট পর আমাদের সকুলে জাতীয় সংগিত হয় প্রতিদিন আমরা সবাই লাইনে এসে দাড়ায় আছি,,, আমি মেয়েটি কে লাইনে এসে খুজে তার দিখে তাকালাম তাও দেখি মেয়েটি আমার দিখে তাকিয়ে হাসছে,,,,

আমি তো তাকিয়েই আছি ওই মেয়েটির দিখে মেয়েটাকে দেখতে দেখতে আমি জেন এক অন জগতে চলে গেছি,,,, তারএকটু পর আমাদের জাতীয় সংগিত শেষ হলো সবাই যার যার রুমে গিয়ে আমাদের class নেওয়া শুরু করলো স্যাররা class এ তো একটুও মন বসছে না মন টা শুধু ওই মেয়েটাকে দেখার জন্য ছটফট করছে,,,,,,, এমন ভাবে কয়টা দিন কাটতে লাগলো হটাত একদিন ওই মেয়েটির বানধবি আমাকে সকুল ছুটির পর ডাকসে বলছে ভাইয়া শুনে যাবেন একটু,,,,, আমি দেরি না করে সাথে সাথে চলে গেলাম গিলে ওই মেয়েটির বানধবি আমাকে বলছে ভাইয়া জুই আপনাকে কিছু বলবে বনধুরা জুই মানে সেই মেয়েটি যাকে আমি ভালোবাসি আমার মনের মধ্য তো আননদ নিলা বয়ে যাচেছ খুশি তে,,,,,,

আমি বললাম জুই কে বললাম কিছু বলবে তুমি আমাকে,,,,, জুই বললো আপনি কি ফোন ব্যবহার করেন,,,, আমি কিছু না ভেবেই বললাম হ্যা করি মেয়েটি তখন বললো ফোন নামবর টা দেবেন আপনার সাথে আমার কিছু কথা আছে তখন,,,,, আমি আমার বাড়ির যে ফোনটা ছিলো আমমু ব্যবহার করতে সেই নামবর দিয়ে দিলাম আমার নিজের কোনো ফোন ছিলো না,,,আমি তখন সকুল ব্যাগ থেকে কলম আর একটা কাগজে ফোন নামবর টা লিখে দিলাম,,,, মেয়েটি তখন বললো ঠিক আছে আমি বিকালে ৫ টার দিখে ফোন করে বলবো,,,,,,

আমি বললাম ঠিক আছে তখন,,, আমার মনের মধ্য আননেদর জোয়ার বয়ে যাচেছ আমি হাসি মুখটা নিয়ে বাসায় গেলাম গিয়ে ফ্রেস হয়ে আমমুর ফোন টা মিথ্যা কথা বলে নিয়ে আসলাম সারাখন ফোনটা নিয়ে ওয়েট করে আছি কখন মেয়েটি ফোন করবে প্রায় ৫ টা বেজে গেছে কিনতু এখনো ফোন করে নি আমি সনধ্যা পযনত ওয়েট করলাম ফোনটা নিয়ে কিনতু কোনো নামবর থেকে ফোন আসলো না এরপর ফোনটা থুয়ে আমি সনধ্যার সময় বইটা নিয়ে বসলাম কিনতু ভালোলাগছে না পড়তে রাতে সারারাত ভাবতে লাগলাম মেয়েটির কথা আমার মনটা ভীষন খারাপ মেয়েটি ফোন দিতে চাইলো কিনতু দিলো না ফোন তাই মনটা খারাপ করে সকুলে গেলাম দেখলাম মেয়েটি হাসিমুখে ঘুরে বেড়াচেছ সকুলে তার বানধবি দের সাথে,,,

আমি সকুল ছুটির পর মেয়েটির সাথে খানিক রাসতা হেটে গেলাম বললাম ফোন দিতে চাইছিলে তা দাও নি কেনো আমি ওয়েট করে ছিলাম তোমার ফোনের জন্য,,, তারপর মেয়েটি বললো আমি নানির কাছ থেকে ফোন টা নিতে পারি নি তার জন্য Sorry ,,,, আমি বললাম না ঠিক আছে আজ যদি সময় পাও তাহলে ফোন দেওয়ার চেষটা করো,, মেয়েটা বললো ঠিক আছে,,, আমি এবার বাড়ি গিয়ে খাওয়া -দাওয়া করে বিকালে আমমুর ফোন টা নিয়ে একটু মাঠে গিয়ে বসে আছি প্রায় ৫ টা বেজে গেছে হটাত দেখি রং নামবর থেকে একটা ফোন আসলো তখন আমার বুকের মধ্য লাফিয়ে ওঠেছে আমি তখন ফোন টা কেটে দিয়ে ফোন করলাম,,,,

আমি হ্যালো বলার সাথে সাথে মেয়েটি বললো কেমন আছেন,,,, আমি বললাম এখখন ভালো ছিলাম না এখন তোমার ফোন টা পেয়ে ভালোই আছি,, আমি : বললাম তুমি কেমন আছো?,, মেয়ে: হ্যা ভালো তারপর কিছু খন পর কথা বলতে বলতে মেয়েটি বললো একটা কথা জিগগাস করবো,,,,, আমি বললাম হ্যা করো,,,, মেয়েটি বললো আপনি কি আমাকে সত্যি ভালোবাসেন আমি,, বললাম তোমাকে আমাকে সত্যি ভালোবাসি এভাবে কিছুখন কথা বলার পর,,,

মেয়েটা আমাকে বললো ঠিক আছে আমিও তোমাকে ভালোবাসি তখন আমার মনটা খুশি তে ভরে গেলো ঔ দিন প্রায় ৩০ মিনিট কথা বলার পর ফোনটা রেখে দিলাম এভাবে আমাদের রিলেশন ১ বছর চলতে থাকলো ঠিক মতো, এর পর মেয়েটি class ৮ই উঠলো এবার jsc exam শুরু হলো মেয়েটির পরীখার মধ্য মাঝে মাঝে কথা বললাম কয়েক দিন পর পরীখা শেষ হলো মেয়েটি এবার তারবাড়ি চলে গেলো বেড়াতে আমার মনটা ভিষন খারাপ তাকে আর দেখতে পারবো না, মেয়েটি বাড়িতে গিয়ে আমাকে ফোন করলো কয়েক দিন কথা বলতে লাগলাম হটাত কি ভাবে তার মা দেখে ফেললো আমার সাথে ফোনে কথা বলছে তা এই নিয়ে মেয়েটির মা ওর কাছে জিগগাস করলো বললো ছেলেটি কে

তখন মেয়েটি বলতে না চাইলে তার মা তাকে জোরপূবক ভাবে জিগগাস করলো বললো কে বল আগে তখন মেয়েটি বলো নানি বাড়ির ওখানে আমি যে সকুলে পড়ি ওই সকুলের একটা ছেলে তখন থেকে ওর সাথে যোগাযোগ বনধ হয়ে গেলো আমার, তখন থেকে ওর বাড়িতে একটু ঝামেলা সৃষিট করলো হলো তারপর ওই মেয়েটির রেজালট দিলো আমি কোনো না কোনো ভাবে ওর বানধবি দের কাছ থেকে যানতে পারলাম এবার ও class 9 এ উঠবে কিনতু ওকে সকুলে বই নিতে আসতে দেখলাম না ওর বানধবিদের কাছে জিগগাস করলাম তা বললো ও নানি বাড়ি থেকে চলে গেছে ওর বাড়ির ওখানে সকুলে ভতি হয়েছে 9 এ তেখন সুনে আমার মনটা অনেক খারাপ হয়ে গেলো ওর ঔ ঝামেরা হওয়ার ।

পরথেকে আর একদিনও কথা হয়নি এভাবে যোগাযোগ বিহীন ১ বছর কেটে গেলো এবার ও টেনে উঠলো হটাত একদিন একদিন একটা রং নামবর থেকে ফোন দিয়ে বললো কেমন আছেন,, আমি বললাম ভালো কিনতু আপনি কে,, মেয়েটি তখন বললো আমাকে চিনতে পারছেন না,, আমি বললাম না কে আপনি মেয়েটি বললো আমি জুই তখন থেকেই আবার আমাদের মধ্য কথা বলা শুরু হলো এভাবে চলতে থাকলো আর ৬মাস তারপর কোনো এক কারনে আমাদের মধ্য ঝকড়া হলো তারপর brackup হয়ে গেলো আমাদের মধ্যা
বনধুরা একটা ভুলের জন্য আমি আমার প্রথম ভালোবাসি হারিয়েছি

সম্পূর্ণ গল্প টা পড়ার জন্য ধন্যবাদ


বনধরা গল্পটা কেমন হয়েছে জানাতে ভুলবেন না । যদি গল্পটা ভাল লাগে তাহলে শেয়ার করে আপনার বন্ধুদেরকে পড়ার সুযোগ করে দিন ।

না বলা কথা। ভালবাসর গল্প-Love Story

লেখকঃসাগর

ভালবাসার সত্য গল্প- Sad Love story

By admin

0 thoughts on “জীবনের প্রথম অসমাপ্ত ভালবাসার সত্য গল্প- Sad Love story”

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *